সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৫:৪৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আড়াইহাজার ভুতের আড্ডা রেষ্টুরেন্টে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান, ৯ কিশোরী ৭ কিশোরকে আটক সোনারগাঁয়ে ট্রাকেট চাপায় যুবক নিহত সোনারগাঁওয়ে সাধন হত্যা, দুই বন্ধুকে মৃত্যুদণ্ড সিদ্ধিরগঞ্জে ট্রাকচাপায় বৃদ্ধার মৃত্যু সাংবাদিক ইকবালকে কটূক্তির অভিযোগে সাইবার নিরাপত্তা আইনে মামলা ফতুল্লায় সাংবাদিকদের দমাতে গ্যাস চোর চক্রের অপচেষ্টা। রমজান মাসে বড় ধরনের ইফতার পার্টি না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ফতুল্লায় সিগারেটের ধোঁয়াকে কেন্দ্র করে কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে হুংকার দিয়ে কথা বলার সাহস কোথায় পায়, মেয়র আইভী দানিয়াল হত্যার মামলার আসামি অনিক প্রধান গ্রেফতার

কুতুবপুরে র‌্যাবের অভিজানে গ্রেফতার ১১, অধরা গেন্দু

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার কুতুবপুর থেকে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ১১ জনকে গ্রেপ্তার করলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেল কথিত যুবলীগ নেতা ও কিশোর গ্যাংয়ের শেল্টার দাতা খান মোঃ গেন্দু।

এদিকে মাসুদ হত্যার নেপথ্যে খান মোঃ গেন্দুর ছোট ভাই পরিচয় দানকারী কিশোর গ্যাং লিডার রাকিবের বন্ধু সোহেল দিন দুপুরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

এ বিষয়ে কথিত যুবলীগ নেতা খান মোঃ গেন্দুকে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ তলব করলে ক্ষমতাসীন দলের বড় ভাইদের তদবিরের কারণে রক্ষা পান তিনি। মূলত খান মোঃ গেন্দু পাগলা নয় মাটি এলাকার কিশোর গ্যাংয়ের শেল্টার দিয়ে থাকেন। তার শেল্টারের কারণেই দিন দুপুরে মাসুদ নামের যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে সোহেল বাহিনী।

মাসুদ হত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে কুতুবপুরে কিশোর গ্যাং গ্রুপ। কিছুদিন পালিয়ে থাকলেও আবারো তাদের দলবল নিয়ে মহড়া দিচ্ছেন এলাকায়। এতে করে আতঙ্কে রয়েছে পাগলা নয়মাটি এলাকার সাধারণ জনগণ। তারা মনে করছেন এই কিশোর গ্যাংয়ের কারণেই আবারো ঘটতে পারে হত্যার মতো ঘটনা। তাই তাদের এখনই লাগাম টেনে না ধরা হলে ভবিষ্যতে আবারো ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত ঘটনা।

কিশোর গ্যাং এর বিষয়ে এলাকাবাসী বলছে এলাকার কিছু নামধারী নেতারাই তাদেরকে আস্কারা দিয়ে এলাকায় বিভিন্ন অপকর্ম করাচ্ছে। তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য কিশোর গ্যাং তৈরি করছে। তাদেরকে দিয়ে মাদক ব্যবসা চাঁদাবাজি, ডাকাতি সহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম করাচ্ছে।

প্রশাসন বারবার অভিযান চালালেও ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে কিশোর গ্যাংয়ের শেল্টার দাতারা। প্রশাসন যদি এই শেল্টার দাতাদের কে আইনের আওতায় নিয়ে আসে তাহলেই কিশোর গ্যাং মুক্ত হবে এলাকা। তা না হলে কোনভাবেই কিশোর গ্যাংয়ের প্রভাব কমবে না। তাই এই বিষয়ে র্যাবের কঠোর নজরদারি কামনা করছেন এলাকার সাধারণ জনগণ।

উল্লেখ্য, ফতুল্লায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে বুধবার র‌্যাব তাদের ফতুল্লা থানায় হস্তান্তর করে।

গ্রেফতাররা হলেন- ফতুল্লা মডেল থানার নয়ামাটি এলাকার স্বাধীন ওরফে জয় (২৫), নন্দলালপুরের সুজন (২৭), একই এলাকার জোনায়েদ হোসেন (২৭), পাপ্পু মিয়া (২৩), মো. রানা (২৮), শাহিন চৌধুরী (২২), নকিবুল ইসলাম অনি (২৫), হাসান (২৫), আরিফুল ইসলাম (২০), ফজলে রাব্বি (২১) ও নাঈম হোসেন নিলয় (২০)।

র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া অফিসার লে. কমান্ডার মাহমুদুল হাসান বলেন, মঙ্গলবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে ফতুল্লার নন্দলালপুর মেডিকেল রোডের একটি বাড়ির দোতলা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা সংঘবদ্ধ হয়ে ডাকতির পাশাপাশি চাঁদবাজি, ছিনতাই, অস্ত্রের মহড়াসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলো

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD