শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আড়াইহাজারে ট্রাক চাপায় পৌরসভার ইলেকট্রিশিয়ান নিহত আড়াইহাজারে ঘর থেকে তুলে নিয়ে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ফতুল্লায় তিন বছরের শিশু অপহরণের ঘটনায় গ্রেফতার ২ বন্দরে মিশু ডকইয়ার্ডের শ্রমিক নিহত ফতুল্লায় সৌদি প্রবাসীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক ও টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ আ: রহমানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশে মিছিল নিয়ে ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের যোগদান মিল্টন সমাদ্দারের সব অপকর্ম তদন্ত করে বের করা হবে, হারুন শ্রমিক-মালিক সুসম্পর্ক রেখে উৎপাদন বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর তৃতীয় শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, স্বীকারোক্তিতে রোমহর্ষক বর্ণনা ধর্ষকের অয়ন ওসমানের ছবি ব্যবহার করে কুতুবপুরে রায়হানের অপরাধ জগত

কুতুবপুরে অবৈধ গ্যাস সংযোগ, সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব, পকেট ভরছে মিজান ও গিয়াসউদ্দিন 

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- দীর্ঘদিন ধরে কুতুবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় তিতাসের লোক পরিচয়ে অবৈধ ভাবে গ্যাস সংযোগ দিচ্ছে গিয়াস উদ্দিন ও মিজান। আর এই সুযোগে কুতুবপুরে বিভিন্ন এলাকায় দিনে রাতের আঁধারে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে তারা।

তিতাস গ্যাস বিতরণ কোম্পানির কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর সহযোগিতায় স্থানীয় দালাল ও ঠিকাদারদের মাধ্যমে রাতভর বাসাবাড়িতে অবৈধ ওই গ্যাস সংযোগ দিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এদিকে অবৈধ গ্যাস সংযোগের ব্যাপারে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট অফিসে অভিযোগ করলেও অদৃশ্য কারণে নিশ্চুপ রয়েছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

গত শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পাগলা নয়ামাটি উঁচাপাড়া এলাকায় অবৈধ দেয় মিজান ও গিয়াসউদ্দিন। সরকারি সম্পদ তিতাস গ্যাস লাইন চুরির ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতির তৈরি হয়।

এসময় স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানান স্থানীয় বাসিন্দারা,পরে সংবাদকর্মীরা উপস্থিত হয়ে তিতাস ডিস্টিবিউশন ফতুল্লা জোন এর ম্যানেজার মশিউর রহমানকে জানালে পরক্ষণেই আড়াইশ ফিট ও দুইশ ফিট লম্বা পাইপ দিয়ে দেয়া অবৈধ সংযোগ দুটি বিচ্ছিন্ন করে তিতাস।

স্থানীয়রা জানান পাগলা চিতাশাল এলাকার গ্যাস চোর মিজান ওরফে কুত্তা মিজান ও রসূলপুর এলাকার গ্যাস চোর সিন্ডিকেটের মূল হোতা গিয়াস উদ্দিন মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ১৬ ই ফেব্রুয়ারি শুক্রবার গভীর রাতে যখন সবাই ঘুমন্ত থাকা অবস্থায় চুরি করে অবৈধ ভাবে গ্যাস সংযোগ দুটি দেয়। রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ বনে যাওয়া গ্যাস চোর সিন্ডিকেটের মূল হোতা গিয়াস উদ্দিন ও মিজান তিতাসের কিছু অসাধকর্মকর্তার যুগ সাজু সে দীর্ঘদিন যাবৎ হরহামেশাই এভাবে রাতের আঁধারে দিয়ে যাচ্ছে অবৈধ গ্যাস সংযোগ। একদিকে যেমন রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার অন্যদিকে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বৈধ গ্রাহকরা। বৈধ গ্যাস সংযোগ থাকার পরেও এলপি গ্যাসের মাধ্যমে রান্না করে খেতে হচ্ছে গ্যাস না পাওয়ার কারণে এমনটিই জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, তিতাস গ্যাস কোম্পানির কিছু অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সহায়তায় গিয়াস উদ্দিন ও মিজান এলাকায় বাড়িপ্রতি ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে রাতারাতি গ্যাস সংযোগ দিয়েছে। এ বিষয়ে নয়ামাটি বৈধ গ্যাস সংযোগকারী এলাকাবাসী প্রতিকার চেয়ে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জোনাল বিপণন অফিস ফতুল্লাকে জানান।

এলাকাবাসী জানান, এলাকার কুতুবপুর ইউনিয়নের চিত্রাশাল, রসুলপুর, নয় মাটি মুসলিম পাড়া, বউবাজার, দেলপাড়া, প্রাপ্তি সিটি, প্যারাডাইস সিটিসহ বিভিন্ন বাসা বাড়িতে অবৈধ তিতাস গ্যাস সংযোগ দিয়ে কতিপয় ব্যক্তি মাসে মাসে প্রতি সংযোগ থেকে ১০,০০০/২০০০০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে। উত্তর রসুলপুর এলাকার গিয়াস উদ্দিন ও পাগলা চিতাশাল এলাকার মিজান তার নিজ গ্যাস সংযোগ থেকে এ সমস্ত অবৈধ সংযোগ দিয়ে প্রতি সংযোগ থেকে ৪০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা করে আদায় করে। তবে একাধিকবার তিতাস অফিসে তাদের বিরুদ্ধে জানালেও রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জোনাল বিপণন ফতুল্লা গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে স্থানীয়রা বলেন, সরকারদলীয় নেতার নাম ভাঙ্গিয়ে গিয়াস উদ্দিন ও মিজান অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়েছেন। তারা আরো বলেন, তিতাস গ্যাস বিতরণ কোম্পানির অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মদদে তাদের লাইসেন্সপ্রাপ্ত ঠিকাদার ও স্থানীয় দালালচক্র মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে নিজেরাই মূল গ্যাস লাইন ছিদ্র করে বাসাবাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিচ্ছে। অবৈধ গ্যাস সংযোগের কারণে যারা বৈধ গ্যাস সংযোগকারী রয়েছে তাদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। ভোগান্তি লাঘবে তারা অনতিবিলম্বে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছন্ন করার জন্য তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করেন। তবে এ বিষয়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ পাওয়া বাড়ির মালিকরা বলেন, আমাদের গ্যাসের দরকার, গ্যাস পেয়েছি। ওই গ্যাস বৈধ না অবৈধ তা জানি না। তবে যখন বৈধ করার দরকার হবে, তখন বৈধ করে দিবে তারা।

এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জোনাল বিপণন ফতুল্লা ম্যানেজার মশিউর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, গিয়াস উদ্দিন ও মিজানকে আমি চিনি, তারা তিতাসের কোন লোক নয়, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD