সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

ফতুল্লায় বেপরোয়া হয়ে উঠছে সোর্স নামধারী মাদক ব্যবসায়ী সোহাগ

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- ফতুল্লায় দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে সোর্স নামধারী মাদক ব্যবসায়ী সোহাগ। এদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে থানা এলাকার সাধারণ মানুষ। ফতুল্লা থানার কয়েক জন অসাধু অফিসাদের শেল্টারে সোর্স সোহাগ এভাবে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে মনে করেন থানা এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে ফতুল্লা থানার অফির্সাস ইনচার্জ (ওসি) রকিবুজ্জামানসহ পুলিশ সুপারের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সাধারণ জনতা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন সচেতন এলাকাবাসী বলেন, কিছু কিছু অসাধু পুলিশ সদস্যরাই এসব সোর্সদের লালন পালন করে থাকে তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য। আবার কখনও কখনও পয়সা ওয়ালা লোকদের টার্গেট করে সোর্সরা। তাদেরকে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে ফাঁসিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা।

সচেতন এলাকাবাসী আরো জানায়, শুধু ফতুল্লা থানা এলাকায় রয়েছে ২০/২৫ জন পুলিশের কথিত সোর্স। এসব সোর্সরা পুলিশের সাথে চলাফেরা আর কারণেই মাঝেমধ্যে নিজেরেই হয়ে যায় পুলিশের কর্মকর্তা।

এদিকে ফতুল্লা সোর্স সোহাগ ফতুল্লা আলীগঞ্জের এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ক্যাপ জুয়েল সাথে সখ্যতা গড়ে মাদক ব্যবসা পরিচালনা করছে। এমনকি বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীকে  পুলিশের ভয়-ভীতি দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। রাত হলেই সোহাগ ও মাদক ব্যবসায়ীকে ক্যাপ জুয়েল সুইচগিয়ার নিয়ে বেরিয়ে পড়ে বিভিন্ন লোকদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে মাদক দিয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে তার অনেক।

ফতুল্লা রেলস্টেশন, ব্যাংক কলোনী এলাকায় ঘুরে ঘুরে ভয়-ভীতি পুলিশের নাম ভাঙ্গিয়ে মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকা আদায় করছে।

নিরিহ লোকজনকে টার্গেট করে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে ফাঁসিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিচ্ছে। তুলে দেওয়ার কিছুক্ষন পর তারাই আবার মোটা অংকের টাকা দিয়ে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়িয়ে রাখছেন।

সোর্স সোহাগের কারণে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে এলাকার সাধারণ জনগণ তাই অতি দ্রুত এই কথিত সোর্স সোহাগের বিরুদ্ধে এখনই ব্যবস্থা না নিলে ভবিষ্যতে তার হাতে নিরীহ মানুষদের হয়রানির শিকার হতে হবে। তাই প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করছেন ফতুল্লা এলাকার সাধারন জনগণ।

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD