রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৫:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

ইজিবাইক চোরের সরদার সানাউল্লাহগংদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- ফতুল্লা থানা অওয়ামীলীগের সভাপতি ও কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম.সাইফউল্লাহ বাদলের ভগ্নিপতি অটো ও ইজিবাইক চোরের সরদার,ভুমিদস্যু ও চাদাঁবাজ সানাউল্লাহগংদের গ্রেফতারের দাবীতে মানবন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে ভুক্তভোগীরা।

বৃহস্পতিবার ( ৩০ নভেম্বর ) দুপুরে ফতুল্লার পঞ্চবটীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে কাশিপুর ও এনায়েতনগর ইউনিয়নের অটো ও ইজিবাইক মালিক শ্রমিকবৃন্দ।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন,নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা অটো রিক্সা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আবদুল জব্বার, সাবেক সভাপতি স.ম.জলিল,সহ-সভাপতি মো.আনোয়ার হোসেন,দপ্তর সম্পাদক আনোয়ারুল কবীর,শ্রমিক নেতা মো.দেলোয়ার হোসেন,মো.বাপ্পি সরকার প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন,আমাদের সৎপথে উপার্জিত অর্থ দিয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে দু’মুঠো খেয়ে বাচঁতে একটি গাড়ি কিনেছি। কিন্তু সেই গাড়ি থেকে চেয়ারম্যান বাদলের ভগ্নিপতি সানাউল্লাহসহ তার সাঙ্গপাঙ্গরা নিয়মিতভাবে চাদাঁ নিচ্ছে। তাদের দাবীকৃত চাদাঁ না দিলে আমাদের গাড়ির গদি ও নম্বর প্লেট খুলে যাচ্ছে। আমরা এ বিষয়ে কয়েকবার থানা পুলিশকে অবগত করেছি। কিন্তু তারপরও সানাউল্লাহগংদের চাদাঁবাজিসহ মালিক শ্রমিকদের উপর নির্যাতন কমেনি। যদি পুলিশ প্রশাসন চাদাঁবাজ সানাউল্লাহগংদের বিরুদ্ধে দ্রæত ব্যবস্থা না নেয় তাহলে আমরা অচিরেই থানা সামনে মানববন্ধনসহ আরো বড় প্রকারের আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবো। তাই পুলিশকে অনুরোধ করছি উক্ত চাদাঁবাজ সানাউল্লাহগংদের বিরুদ্ধে দ্রæত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন কওে নিরীহ মালিক ও শ্রমিকদেরকে বাচাঁন।

এ আগে বুধবার রাতে সানাউল্লাহগংদের বিরুদ্ধে পঞ্চবটী চাদঁনী হাউজিং এলঅকার আলী আহাম্মদ প্যাদার ছেলে মাহাবুব প্যানা ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন যে, আমি সহ এনায়েতনগর কাশিপুর এলাকার মিশুক ও ইজি বাইক ড্রাইভারগণ গাড়ী চালাইয়া দীর্ঘদিন ধরিয়া জীবিকা নির্বাহ করিয়া আসিতেছি। উক্ত ১নং বিবাদী সানাউল্লাহ একজন রিক্সা চোর দলের সরদার। ১নং বিবাদী অন্যান্য বিবাদীদের কে নিয়া এনায়েতনগরও কাশিপুর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরিয়া বিভিন্ন ধরনের অপরাধ মূলক কর্মকান্ড করা সহ তাহারা তাহাদের মনগড়া নাম্বার প্লেট বানিয়ে আমাকে সহ অন্যান্য মিশুক ও ইজি বাইক ড্রাইভারদেরকে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করা সহ নাম্বার প্লেট প্রতি ২,০০০/- টাকা করিয়া দাবী করিয়া। আসিতেছে। বিবাদীরা বলে যে, আমরা যদি তাহাদের নিকট হইতে তাহাদের নাম্বার প্লেট না নিয়া উক্ত এলাকায় গাড়ী চালাইতে যাই তাহা হইলে আমাদের গাড়ী ভাংচুর করা সহ আমাদেরকে যে কোন বড় ধরনের ক্ষতি সাধন করিবে।

আমরা বিবাদীদের নাম্বার প্লেট নিয়া গাড়ী চালাইবো না মর্মে জানাইলে বিবাদীরা বলে যে, ফতুল্লা থানা এলাকায় গাড়ী চালাইতে হইলে তাহাদের দেওয়া নাম্বার প্লেট দ্বারা গাড়ী চালাইতে হইবে নচেৎ তাহাদের পালিত চোরদের দ্বারা যে কোন সময় আমাদের গাড়ী চুরি করিয়া নিয়া যাইবে মর্মে হুমকি প্রদান করিয়া আসিতেছে। ২৯ নভেম্বর সাড়ে ১০ আমি পঞ্চবটি হইতে কাশিপুর খিল মার্কেট এলাকায় মিশুক গাড়ী নিয়া গেলে উক্ত ১নং বিবাদী সহ অন্যান্য বিবাদীরা আমার গাড়ীর গতিরোধ করতঃ আমাকে তাহাদের নাম্বার প্লেট নেওয়ার জন্য বলে। আমি বিবাদীদের নাম্বার প্লেট নিবো না মর্মে জানাইলে বিবাদীরা আমাকে আমার গাড়ী হইতে নামাইয়া এলোপাতাড়ী ভাবে মারধর করিয়া শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলা ফোলা জখম করতঃ আমার মিশুক গাড়ীর ছিট খুলিয়া নেয় এবং আমার নিকট থাকা নগদ ১৭৫০/- টাকা নিয়া নেয় এবং তাহাদের একটি নাম্বার প্লেট আমাকে ধরিয়া দেয়, যাহার নং-৯৪২।

আমি চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন আগাইয়া আসিলে বিবাদীরা সবার সামনে আমাকে এই মর্মে হুমকি দেয় যে, আমি যদি উক্ত বিষয় নিয়া কাহারও নিকট বিচার অথবা আইনের আশ্রয় গ্রহণ করি তাহা হইলে আমাকে জীবনে শেষ করিয়া ফেলিবে নচেৎ পুনরায় আমাকে কাশিপুর এলাকায় পাইলে আমাকে হত্যা করিয়া আমার লাশ গুম করিয়া ফেলিবে। বিবাদীরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ প্রকৃতির লোক। বিবাদীদের ভয়ে এলাকার কেহই মুখ খুলতে সাহস পায় না। তাহারা যে কোন সময় আমার বা অন্যান্য মিশুক ও ইজি বাইক গাড়ীর ড্রাইভারদেরকে যে কোন বড় ধরনের ক্ষতি সাধন করিতে পারে মর্মে আশংকা করিতেছি

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD