বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাদ্রাসার ছাত্রদের চুল কাটার ঘটনায় মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা বন্দরে ৯২ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ১ নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নের জন্য শামীম ওসমান সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পরিশ্রম করছেন, শাহ্ নিজাম বাংলাদেশের প্রথম পাতালরেল নির্মাণের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী খানপুরে পাওয়ার স্টেশনে অগ্নিকাণ্ড, বিদ্যুৎহীন অনেক এলাকা সিদ্ধিরগঞ্জে ২৫ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ৪ রূপগঞ্জে কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণ, ২ যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ফতুল্লায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা, ২০ লাখ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট ফতুল্লায় ডোবা থেকে নবজাতকের মৃতদেহ উদ্ধার ভোট চোর সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করেই ঘরে ফিরবো, ইসহাক

প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে অতিরিক্ত অ্যালকোহল ও যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট খেয়ে পিয়নের মৃত্যু

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- কুমিল্লার হোমনায় প্রবাসীর স্ত্রীর ভাড়া বাসায় ৪৩ বছর বয়সী এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৩টার দিকে তিনি মারা যান। তবে এটি রহস্যজনক মৃত্যু বলে দাবি স্বজনদের।

মৃতের নাম মো. আলম মিয়া। তিনি হোমনা পূর্বপাড়া গ্রামের মো. আক্তার হোসেনের ছেলে ও দাউদকান্দি উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিসে পিয়ন (এমএলএসএস) হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে হোমনা বদলহাজি বাড়ির তোতা মিয়ার মেয়ে রেহেনা বেগমের স্বামী বিদেশে রয়েছেন। এজন্য তিনি হোমনা চৌরাস্তায় মো. আফাজ উদ্দিনের পাঁচতলা ভবনের তৃতীয় তলায় ভাড়া নিয়ে থাকেন। তার বাসায় প্রায়ই যাতায়াত করতেন আলম।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৩টার দিকে রেহেনার বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন আলম। এ সময় মো. রফিকুল ইসলাম নামে একজনের সহযোগিতায় আলমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান রেহেনা। সেখানে নেয়ার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। এ সময় ভুল ঠিকানা দিয়ে সেখান থেকে রেহেনা পালিয়ে যান। পরে রফিকুল ইসলামের মাধ্যমে তার নাম ঠিকানা পাওয়া যায়।

ঘটনার বিষয়ে জানতে রেহেনা বেগমের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, আলম আমার বন্ধু। তার সঙ্গে ৮টার দিকে দাওয়াতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু যেতে পারিনি। রাত সোয়া ৩টার দিকে আলমের মোবাইল ফোন থেকে অসুস্থতার খবর জানান রেহেনা। পরে আমি গিয়ে রেহেনার বাসা থেকে আলমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সাহিদা সিকদার বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। অতিরিক্ত অ্যালকোহল বা যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট খাওয়ার পরে হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হোমনা থানার ওসি আবুল কায়েস আকন্দ বলেন, আলমের লাশ কুমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে। এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। তবে রেহেনা বেগমকে খুঁজছি। তাকে পেলেই মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD