সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১০ অপরাহ্ন

লুডু খেলায় নিজেকে বাজি ধরলেন এক নারী

সংবাদ নারায়ণগঞ্জ:- জুয়ায় আসক্তি চরম হয়ে পড়লে অবাক করা অনেক পরিস্থিতি দেখা দেয়। অনেক জুয়াড়িই হারতে হারতে টাকা-পয়সা শেষ হয়ে গেলে নিজেকেই তুলে ফেলেন বাজির দানে। সম্প্রতি ভারতের উত্তর প্রদেশের প্রতাপগড়েও এমন অদ্ভুত ঘটনার কথা উল্লেখ করে পুলিশের শরণাপন্ন হয়েছেন।

ভারতীয় ব্যক্তির অভিযোগ, তার স্ত্রী ও দুই সন্তানের মা সঞ্চয়কৃত টাকা-পয়সাসহ নিজেকে বাজি ধরেছেন। তিনি ছিলেন লুডু খেলায় বাজি ধরার ক্ষেত্রে আসক্ত। স্বামী কাজের জন্য বাড়ির বাইরে থাকতেন। প্রায়ই তিনি বাজি ধরে লুডু খেলতেন বাড়ির মালিকের সঙ্গে।

তার আরো অভিযোগ, তিনি নিয়মিত স্ত্রীর কাছে বাড়িতে টাকা পাঠাতেন। কিন্তু তা সঞ্চয় বা পরিবারের জন্য কেনাকাটা না করে বাড়ির মালিকের সঙ্গে লুডুতে বাজি ধরে উড়িয়ে দিতে। একদিন বেপরোয়া হয়ে তিনি নিজেকে বাজি ধরেন। খেলায় হেরে গিয়ে বাজির শর্ত মেনে তিনি বাড়ির মালিকের ঘরে চলে যান, পরিত্যাগ করেন নিজের সন্তানদের।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে এই নারীকে শুরু ‘রেনু’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। তার স্বামী পুলিশের কাছে অভিযোগে বলেছেন, গত ছয় মাস রাজস্তানের জয়পুর শহরে কাজ করে যে টাকা তিনি পাঠিয়েছেন তা বাজি ধরে হেরেছেন তিনি। শেষে নিজেকে বাজি ধরে খেলতে গিয়েও হেরে যান। তখন রেনু তাকে ফোন করে সবকিছু বলেন এবং জানান যে, বাজির শর্ত অনুসারে তিনি বাড়ির মালিকের কাছে চলে যাচ্ছেন।

ঘটনা শুনে জয়পুরে কাজ থেকে বাড়িতে আসেন রেনুর স্বামী এবং সন্তানদের দায়িত্ব নেওয়ার পর পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে’কে স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা সুবোধ গৌতম বলেন, আমরা ওই বাড়ির মালিকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। যোগাযোগ করার পর আমরা তদন্ত শুরু করব।

অবস্থা যা দাঁড়িয়েছে, রেনুকে ফিরে পেতে পুলিশের সহযোগিতা প্রয়োজন পড়বে তার স্বামী। কারণ তিনি দাবি করেছেন, বাড়ির মালিকের কাছে চলে যাওয়ার পর রেনুর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন এবং বাড়িতে ফিরে আসার জন্য রাজি করাতে চেয়েছেন। কিন্তু রেনু বাজির শর্তের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে অনড়।

নিউজটি শেয়ার করুন...


© 2022 Sangbadnarayanganj.com - All rights reserved
Design & Developed by POPULAR HOST BD